For English Version
শনিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮
হোম সারাদেশ

দু’বার পদন্নোতি আদেশের পরও বহাল তবিয়তে ইউএনও

Published : Wednesday, 14 February, 2018 at 7:37 PM Count : 205

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

চাকুরীজীবীদের ক্ষেত্রে পদোন্নতি কে না চায়। তাও আবার সরকারী কর্মকর্তা বলে কথা।

১৫ দিনের ব্যবধানে দু’বার মানিকগঞ্জের শিবালয় উপজেলা নির্বাহী অফিসার কামাল মোহাম্মদ রাসেদকে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক হিসেবে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের মাঠ প্রশাসন শাখা- ২ পদন্নোতির বদলীর প্রজ্ঞাপন জারী করা হলেও তিনি রয়েছেন বহাল তবিয়তে।

এদিকে, সর্বশেষ ওই নির্বাহী অফিসার বদলীকৃত স্থানে কেন যোগদান করেননি এ মর্মে গত ৮ ফ্রেব্রুয়ারি জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সহকারী সচিব দেওয়ান মাহবুবুর রহমান স্বাক্ষরিত পৃথক আরেকটি প্রজ্ঞাপন জারী করা হয়।

সতর্কতামুলক ওই প্রজ্ঞাপনে উল্লেখ্য করা হয়, ওই কর্মকর্তা ১৪ ফেব্রুয়ারি অপরাহ্নের মধ্যে বদলীকৃত স্থানে যোগদান না করলে তা স্ট্যান্ড রিলিজ হিসেবে গণ্য হবে। সূত্র স্মারক জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের মাঠ প্রশাসন শাখা- ২ নং ০৫.০০.০০০০.১৩৯.১৯.০১৪.১৮-৮০।

নির্ভরযোগ্য সূত্রে জানা গেছে, শিবালয় উপজেলা নির্বাহী অফিসার কামাল মোহাম্মদ রাসেদের নানা অনিয়ম, দুর্নীতি নিয়ে সরকারের একটি নির্ভরযোগ্য গোয়েন্দা সংস্থার গোপন প্রতিবেদন তাদের সংশ্লিষ্ট দফতরে জমা দেন। তার সারসংক্ষেপ প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় হয়ে সংশ্লিষ্ট দফতরে চলে যায়। এছাড়া সরকারী দলের স্থানীয় নেতারা তার বিরুদ্ধে নানা অনিয়মের অভিযোগ তুলে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ে অভিযোগ করেন।

এদিকে, জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের একটি নির্ভরযোগ্য সূত্রে জানা গেছে, গত বছরের ১৪ ডিসেম্বর রাষ্ট্রপতির আদেশক্রমে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সহকারী সচিব দেওয়ান মাহবুবুর রহমান শিবালয় উপজেলা নির্বাহী অফিসার কামাল মোহাম্মদ রাসেদকে পদোন্নতি দিয়ে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মেহেরপুরে বদলীর প্রজ্ঞাপন জারী করেন। পরে ওই নির্বাহী অফিসার উচ্চ মহলে তদবির করে বদলীর আদেশটি স্থগিত করান।

পরবর্তীতে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের একই শাখার ওই সিনিয়র সহকারী সচিব দেওয়ান মাহবুবুর রহমান পুনরায় রাষ্ট্রপতির আদেশক্রমে ৩১ জানুয়ারি ২০১৮ সালে তাকে পুনরায় ব্রাক্ষণবাড়িয়ার অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক হিসেবে বদলীর আদেশ জারী করা হয়। কিন্তু তিনি উপর মহলে তদবির করে এখনও বহাল তবিয়তে আছেন।

স্ট্যান্ড রিলিজ সম্পর্কে কামাল মোহাম্মদ রাশেদ জানান, প্রজ্ঞাপনে এমন কথা লিখেই থাকেন। তার বর্তমান কর্মস্থলে কর্মরত থাকলে সমস্যা নেই।

একাধিক বার বদলী হওয়ার পরও কেন তিনি বদলীকৃতস্থানে যাচ্ছেন না এ প্রসঙ্গে তিনি এই প্রতিবেদককে জানান, এমন একটি আদেশ হয়েছে বলে তিনি জেনেছেন। দেখা যাক উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা কি করেন। তবে তিনি এখনো অফিস করছেন বলে জানান।

জেলা প্রশাসক নাজমুছ সাদাত সেলিম জানান, সরকারী চাকুরিতে বদলী হলে যে কোন কর্মকর্তাকে বদলী হতে হবে এটাই নিয়ম। এটা কারও পৈত্রিক সম্পত্তি নয় যে জোর করে কেউ সরকারী আদেশ ভঙ্গ করবে। নতুন কোন কর্মকতা যোগদান করা মাত্রই কামাল মোহাম্মদ রাশেদকে নতুন কর্মস্থলে যোগদান করতে হবে।

-এসআইএস/এমএ






« PreviousNext »



সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
Editor : Iqbal Sobhan Chowdhury
Published by the Editor on behalf of the Observer Ltd. from Globe Printers, 24/A, New Eskaton Road, Ramna, Dhaka.
Editorial, News and Commercial Offices : Aziz Bhaban (2nd floor), 93, Motijheel C/A, Dhaka-1000. Phone :9586651-58. Fax: 9586659-60, Advertisement: 9513663
E-mail: [email protected], [email protected], [email protected],   [ABOUT US]     [CONTACT US]   [AD RATE]   Developed & Maintenance by i2soft