For English Version
রবিবার, ১৮ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮
হোম সারাদেশ

পুলিশ-গ্রামবাসী সংঘর্ষ, গুলিবিদ্ধসহ আহত ২০

Published : Wednesday, 14 February, 2018 at 6:48 PM Count : 50

হবিগঞ্জের বাহুবলে চা বাগানের জায়গা দখলমুক্ত করাকে কেন্দ্র করে পুলিশ ও গ্রামবাসীর সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধসহ ২০ জন আহত হয়েছে।

বুধবার সকাল ১১টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

গুলিবিদ্ধ ইদ্রিছ মিয়া (৬৫) নামের একজনকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ও অন্যদের বাহুবল এবং হবিগঞ্জ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

স্থানীয় সূত্র জানায়, বাহুবল উপজেলার ভাদেশ্বর ইউনিয়নের সুন্দ্রাটিকি গ্রামের নিকটবর্তী ১৭ একর ৫৭ শতক জমি শত বছর ধরে গোচারণ ভূমি, গাছ বাগান ও বাড়িঘর স্থাপন করে ভোগদখল করে আসছে গ্রামবাসী। সম্প্রতি ফিনলে চা কোম্পানীর রশিদপুর ডিভিশনের আওতাভূক্ত রামপুর চা বাগান কর্তৃপক্ষ ওই ভূমি তাদের লীজকৃত দাবি করে দখলে নেয়ার পায়তারা শুরু করে।

এ অবস্থায় সুন্দ্রাটিকি গ্রামবাসীর পক্ষে আমির উল্লা, উস্তার মিয়া, আকল মিয়া, আব্দুল হাই, তাহির মিয়া, জাহিদ মিয়া ও আউয়াল মিয়া বাদী হয়ে গত ১৮ ডিসেম্বর আদালতে মামলা দায়ের করেন। মামলায় গ্রামবাসী তাদের দখলীয় ভূমি থেকে বাড়িঘর ভেঙে উচ্ছেদের আশঙ্কার কথা উল্লেখ করা হয়। এর প্রেক্ষিতে আদালত বাগান কর্তৃপক্ষ ও স্থানীয় প্রশাসনকে কারণ দর্শানোর নোটিশ প্রদান করেন।  বিষয়টি বাহুবল উপজেলা চেয়ারম্যান ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার উভয় পক্ষের সঙ্গে আলোচনার মাধ্যমে নিষ্পত্তির চেষ্টা চালান।

এ অবস্থায় ওই ভূমিতে গ্রামবাসী নতুন করে ঘরবাড়ি তৈরি করছে বলে বাগান কর্তৃপক্ষ অভিযোগ করলে বুধবার সকাল ১১টার দিকে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ জসীম উদ্দিন ও বাহুবল মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ মাসুক আলীর নেতৃত্বে প্রশাসন এবং আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী ঘটনাস্থলে যায়। এ অবস্থায় গ্রামবাসী জড়ো হলে উভয় পক্ষে উত্তেজনা সৃষ্টি হয়। এক পর্যায়ে পুলিশ গুলি চালালে ২০ জন আহত হয়। এরপর থেকে দিনব্যাপী উভয় পক্ষের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া চলতে থাকে।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ জসিম উদ্দিন জানান, গ্রামবাসী চায় পুরো জমিটা খালি থাকুক আর বাগান কর্তৃপক্ষ চায় তারা তাতে প্লান্টেশন করবে। এ প্রেক্ষাপটে উপজেলা চেয়ারম্যান, ওসি কয়েকবার তাদের দু’পক্ষের সঙ্গে বসেছে। শেষ পর্যন্ত ৭/৮ দিন আগে সিদ্ধান্ত হয় গ্রামবাসীর জন্য ৮ একর জায়গা পতিত রেখে বাকী জায়গা বাগান কর্তৃপক্ষকে দিয়ে দিতে। এছাড়া ঘরবাড়ি যার যেভাবে আছে সেভাবে রাখতে। এ ব্যাপারে আমরা গ্রামবাসীকে লীজ নেয়ার জন্য নিয়ম অনুযায়ী আবেদন করতেও বলি। কিন্তু তারা উপজেলা বা জেলা প্রশাসনে কোন আবেদন করেনি। এ অবস্থায় গ্রামবাসী অবৈধভাবে ওই ভূমিতে বেড়া দিয়ে ঘরবাড়ি তৈরি করে। খবর পেয়ে আমরা আজ ঘটনাস্থলে আসি। এখানে এসে গ্রামবাসীকে সরে যাওয়ার জন্য ১ ঘন্টা সময় দেই। তারা আমাদের কথা শুনেনি। তারা পুলিশের উপর আক্রমণের পায়তারা করে কয়েকজনকে আহত করে। তাদের ছত্রভঙ্গ করতে পুলিশ শর্টগান ও কাদানে গ্যাস ছুড়ে।

-এএএম/এমএ






« PreviousNext »



সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
Editor : Iqbal Sobhan Chowdhury
Published by the Editor on behalf of the Observer Ltd. from Globe Printers, 24/A, New Eskaton Road, Ramna, Dhaka.
Editorial, News and Commercial Offices : Aziz Bhaban (2nd floor), 93, Motijheel C/A, Dhaka-1000. Phone :9586651-58. Fax: 9586659-60, Advertisement: 9513663
E-mail: [email protected], [email protected], [email protected],   [ABOUT US]     [CONTACT US]   [AD RATE]   Developed & Maintenance by i2soft