For English Version
রবিবার, ১৮ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮
হোম জাতীয়

রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে ইউএনএইচসিআর’র সাথে চুক্তি

Published : Monday, 12 February, 2018 at 5:23 PM Count : 26

মিয়ানমারে নিরাপদ পরিবেশ নিশ্চিত হয়েই রোহিঙ্গাদের ফেরত পাঠানো হবে। নিরাপদ পরিবেশ নিশ্চিত করতেই রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়া বিলম্ব হচ্ছে বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম। রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে জাতিসংঘের রোহিঙ্গা বিষয়ক সংস্থা ‘ইউএনএইচসিআর’কে সম্পৃক্ত করে চুক্তি হয়েছে বলে জানান পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী।

সোমবার কক্সবাজারের উখিয়ার কুতুপালংয়ে ইউরোপীয় ইউনিয়নের ৩২ সদস্যের একটি প্রতিনিধিদলকে সাথে নিয়ে রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শনকালে এইসব কথা বলেন প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম। 

সকালে ইইউ প্রতিনিধি দল রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শনে যান। প্রতিনিধিরা নির্যাতিত রোহিঙ্গাদের সাথেও কথা বলেন।

শাহারিয়ার আলম বলেন, জাতিসংঘের এই সংস্থাকে সাথে নিয়ে রোহিঙ্গাদের নিরাপদে স্বদেশে ফেরত পাঠাতে চায় বাংলাদেশ। রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনের ক্ষেত্রে ইউএনএইচসিআরকে সম্পৃক্ত করে চুক্তি হয়েছে। আন্তর্জাতিক এই সংস্থাকে সঙ্গে নিয়ে রোহিঙ্গাদের এমনভাবে স্বদেশে ফেরত পাঠানো হবে যাতে তারা সেখানে নিরাপদে বসবাস করতে পারে। তাড়াহুড়া করলে এই পরিস্থিতি ব্যাহত হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। তাই মিয়ানমারে নিরাপদ পরিবেশ নিশ্চিত করতে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়ায় দেরি হচ্ছে। 

তিনি বলেন, আমরা মিয়ানমারের সঙ্গে যোগাযোগ করে জানতে পেরেছি রোহিঙ্গারা নিজ উদ্যোগে বাংলাদেশে চলে আসছে, এতে তাদের করার কিছুই নেই। গত ৪০ দিনে প্রায় ১০ হাজার রোহিঙ্গা বাংলাদেশে পালিয়ে এসেছে। গত কয়েক দিনে ৩০০ থেকে ৪০০ করে রোহিঙ্গা এসেছে। আমরা যতটুকু জেনেছি, মিয়ানমারের কিছু লোক তাদের বলছে অন্যরা যেহেতু বাংলাদেশে পালিয়ে গেছে, তোমরাও চলে যাও। সে কারণে তারাও বাংলাদেশে আসছে। আবার অনেকেই আসছে হারিয়ে যাওয়া স্বজনদের খুঁজতে। এতে আমরা বিচলিত নই। প্রত্যাবাসন যখন শুরু হবে তখনও যদি রোহিঙ্গা আসা অব্যাহত থাকে, তখন আমাদের সিরিয়াসলি ভাবতে হবে।

এসময় ইইউ প্রতিনিধি দলের প্রধান জিন লামবারট বলেন, মিয়ানমারের পরিস্থিতি উদ্বেগজনক। ইউরোপীয় ইউনিয়ন ও আন্তর্জাতিক মহল মনে করে রোহিঙ্গাদের ফেরত পাঠানোর আগে মিয়ানমার সরকারকে নিরাপদ পরিবেশ সৃষ্টি করতে হবে।

তিনি আরো বলেন, রোহিঙ্গারা মিয়ানমারের যে পরিস্থিতি কথা বর্ণনা করেছেন তাতে কোনো ভাবেই সেই পরিবেশ তাদের অনুকূলে নয়। তাই রোহিঙ্গারা মিয়ানমার থেকে বাংলাদেশে পালিয়ে এসেছে।

নিরাপদ পরিবেশ সৃষ্টি করে রোহিঙ্গাদের ফেরত নিতে মিয়ানমারের প্রতি আহবান জানান তিনি।

এসময় প্রতিনিধি দলের সাথে ছিলেন, জেমস নিকলসন, রিচার্ড করবেট, ওয়াযিদ খান, সাজ্জাদ করিম, মার্ক তারাবেলাসহ ইউরোপীয় ইউনিয়নের ৩২ জন সদস্য।

এফআই/আরইউ






« PreviousNext »



সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
Editor : Iqbal Sobhan Chowdhury
Published by the Editor on behalf of the Observer Ltd. from Globe Printers, 24/A, New Eskaton Road, Ramna, Dhaka.
Editorial, News and Commercial Offices : Aziz Bhaban (2nd floor), 93, Motijheel C/A, Dhaka-1000. Phone :9586651-58. Fax: 9586659-60, Advertisement: 9513663
E-mail: [email protected], [email protected], [email protected],   [ABOUT US]     [CONTACT US]   [AD RATE]   Developed & Maintenance by i2soft