For English Version
মঙ্গলবার, ১৬ জানুয়ারি, ২০১৮
হোম সারাদেশ

টার্গেট পর্যটকরা

কক্সবাজারে ১০টি ভেজাল আচার তৈরির কারখানা; দেখার কেউ নেই

Published : Tuesday, 2 January, 2018 at 5:49 PM Count : 132

কক্সবাজারে নোংরা ও অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে ভেজাল আচার তৈরির কারখানা কিছুতেই বন্ধ হচ্ছে না। পর্যটকদের টার্গেট করেই শহরের প্রায় ১০টি স্পটে তোড়জোড়ভাবে তৈরি হচ্ছে ভেজাল আচার। আচারে বার্মিজ ভাষায় লেখা ভুয়া প্যাকেট ও স্টিকার দিয়ে প্যাকেট করে বাজারজাত করা হচ্ছে বিভিন্ন দোকানে। এমনকি সেখানে ক্ষেত্র বিশেষে ব্যবহার করা হয় ভুয়া বিএসটিআই নাম্বারও। 

এদিকে শনিবার সন্ধ্যায় কলাতলী এলাকায় একটি ভেজাল আচারের কারখানায় অভিযান চালিয়ে সদরের সহকারি কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নাজিম উদ্দিন ২০ বস্তা পঁচা বরই ও ১৫ বস্তা বার্মিজ ভাষায় লেখা ভুয়া প্যাকেট ও স্টিকার দিয়ে তৈরি করা আচারের প্যাকেট জব্দ করেন। পরে এগুলো পুড়িয়ে ধ্বংস করা হয়।    

নাজিম উদ্দিন বলেন, ‘আমি কোনো দিন চিন্তাও করিনি এমন নোংরা পরিবেশে কক্সবাজারে আচার তৈরি হয়। এসব ভেজাল আচার খেয়ে পর্যটকরা অসুস্থ্য ও প্রতারিত হচ্ছে। খাওয়ার অযোগ্য পঁচাবরই, মানবদেহের জন্য ক্ষতিকর ক্যামিকেল, গুড়, চিনি, রং ও বিভিন্ন ক্ষতিকর উপকরণ দিয়ে অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে তৈরী করা হচ্ছে এসব আচার। এরপর বার্মিজ ভাষায় লেখা ভুয়া প্যাকেট ও স্টিকার দিয়ে প্যাকেট করে বাজারজাত করছে। ক্ষেত্রবিশেষে ব্যবহার করা হচ্ছে বিএসটিআই’র ভুয়া নাম্বার। প্রশাসনের চোখ ফাঁকি দিতেই বিভিন্ন মহল্লায় ভেজাল আচার তৈরির কারখানা গড়ে তুলেছে। 

তিনি আরো বলেন- ভেজাল আচারের কারখানায় অভিযানের সময় কাউকে পাওয়া যায়নি। হয়তো টের পেয়ে সবাই পালিয়ে যায়। কক্সবাজার শহরে আরো বেশি কয়েকটি ভেজাল আচারের কারখানা রয়েছে। সব ভেজাল আচারের কারখানা ধ্বংস করা হবে। 

অনুসন্ধানে জানা গেছে, শহরে জসিম ও শরিফ নামে দুই ব্যক্তি এই ভেজাল আচার ব্যবসা নিয়ন্ত্রণ করছে। তাদের নেতৃত্বে অসংখ্য কারখানা গড়ে উঠেছে শহরে। এসব কারখানা থেকে প্রতিদিন পর্যটন শহর কক্সবাজার জুড়ে ছোট-বড় দুইশতাধিক আচারের দোকানে ভেজাল আচার সরবরাহ করা হচ্ছে। আর অবৈধ কারখানা নির্বিঘ্নে রাখতে প্রতি মাসে তিন লাখ টাকা বিতরণ করা হয় আইনশৃংখলা বাহিনী, সাংবাদিক ও স্থানীয় সন্ত্রাসী দলের কতিপয় সদস্যদের মাঝে। যেকারণে বছরের পর বছর ধরে এমন ভেজাল খাবার বিতরণের পর কারখানা মালিকদের বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা নিচ্ছে না প্রশাসন।

এবিষয়ে জানতে চাইলে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতর কক্সবাজার কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক মো. সুলতান মাহমুদ মিলন বলেন- পর্যটকদের টার্গেট করে একটি চক্র কক্সবাজারে ভেজাল আচার ও চকলেট তৈরির কারখানা তৈরি করেছে। তারা বিভিন্ন এলাকায় গোপনভাবে এসব অবৈধ ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে। সম্প্রতি বড় বাজার এলাকায় দু’টি ভেজাল আচার ও চকলেটের দোকানে অভিযান চালানো হয়েছিল। অভিযানে ভেজাল আচার ও চকলেট তৈরির সত্যতা পাওয়া যায়। ওই দুই দোকানকে ৪০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। পর্যায়ক্রমে সকল কারখানা ও দোকানে অভিযান চালানো হবে। 
 
তিনি আরো বলেন, ‘ভেজালের খাদ্যের বিরুদ্ধে সবাইকে সোচ্চার হতে হবে। সচেতনতাও বাড়াতে হবে। আর ভেজাল আচার তৈরী ও বাজারজাতকারীদের আইনের আওতায় আনতে সঠিক তথ্য দিতে হবে।’ 

ভেজাল আচার প্রসঙ্গে কক্সবাজারের সিভিল সার্জন ডাঃ মোঃ আব্দুস সালাম বলেন, ‘ভেজাল আচার স্বাস্থ্যের জন্য খুবই ক্ষতিকর। আচার তৈরি হওয়ার পরে সেখানে পোকা হয়ে যায়। যা খালি চোখে দেখা যায় না। এ কারণে অনেকের এলার্জি, পাতলা পায়খানাও হয়। এছাড়া আরো নানা উপসর্গ দেখা দেয়।’ 

অনুসন্ধানে আরো জানা গেছে, কক্সবাজার শহর ও শহরতলিতে রয়েছে অন্তত ১০টি ভেজাল আচার তৈরির কারখানা। এসব কারখানা এখন পুরোদমে চলছে। এর মধ্যে শহরের বাহারছড়ায় জাহাঙ্গীর, বিজিবি ক্যাম্পে বউ করিম, ঝিলংজার দক্ষিণ ডিককুলে মো. পুতু, শহরের বন্দরপাড়ায় (সমিতিপাড়া) জসিম উদ্দিন, কলাতলীতে (গৈয়ামতলি) এলাকায় নুরুল আলম, খুরুস্কুলে ছুরত আলম, বার্মিজ মার্কেট এলাকায় শরীফ ও  লাইট হাউজ এলাকায় বশর অন্যতম। এছাড়া তাদের বাকি কারখানাগুলো রয়েছে মহেশখালী, পেকুয়া, চকরিয়া এবং বান্দরবানে।  

এবিষয়ে কক্সবাজার সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. নোমান হোসেন জানান, বিভিন্ন জায়গায় সন্ধান ভেজাল আচার তৈরির কারখানার সন্ধান পেয়েছি। মূলত পর্যটকদের পুঁজি করে ভেজাল আচার তৈরি হচ্ছে। দু’দিন আগেও একটি কারখানা ধ্বংস করা হয়েছে। শিগগিরই সব ভেজাল আচার কারখানা বন্ধ করে জড়িতদের আইনের আওতায় আনা হবে।’

এফআই/এইচএস








« PreviousNext »



সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
Editor : Iqbal Sobhan Chowdhury
Published by the Editor on behalf of the Observer Ltd. from Globe Printers, 24/A, New Eskaton Road, Ramna, Dhaka.
Editorial, News and Commercial Offices : Aziz Bhaban (2nd floor), 93, Motijheel C/A, Dhaka-1000. Phone :9586651-58. Fax: 9586659-60, Advertisement: 9513663
E-mail: info@dailyobserverbd.com, news@dailyobserverbd.com, advertisement@dailyobserverbd.com,   [ABOUT US]     [CONTACT US]   [AD RATE]   Developed & Maintenance by i2soft