For English Version
শুক্রবার, ১৫ ডিসেম্বর, ২০১৭
হোম রাজনীতি

বরং, তার উচিৎ দেশবাসীর কাছে ক্ষমা চাওয়া: প্রধানমন্ত্রী

Published : Thursday, 7 December, 2017 at 4:59 PM Count : 180

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, উনি কিসের ক্ষমা করব সেটাই হলো প্রশ্ন। এটা কি আমাকে যে ২১ আগস্ট হত্যার জন্য ষড়যন্ত্র করেছিল সেই ঘটনায় আমাকে যে গ্রেনেড মেরেছিল আমি বেঁচে গেছি, সে কথা বলছেন? ক্ষমা করেছেন না ক্ষমা চাচ্ছেন সেটা স্পষ্ট না। কারণ তার কাছে ক্ষমাটা চাবে কে? কেন ক্ষমা চাইতে যাবো? আর আমি এমন কি অপরাধ করেছি যে তার কাছে আমাকে ক্ষমা চাইতে হবে। বরং, তার উচিৎ দেশবাসীর কাছে ক্ষমা চাওয়া। 

তিনি আরো বলেন, কিবরিয়া সাহেব ও আহসান উল্লাহ মাস্টার হত্যাকাণ্ডের পর আমাদেরকে সংসদের একটি কথাও বলতে দেয়া হয়নি। আপনাদের মনে থাকার কথা। আইভী রহমানসহ একুশে আগস্ট নিহতের নিয়ে আমাদের একটি কথাও বলতে দেয় নাই।তাদের কথায় এমন কতগুলো বক্তব্য আসে যার পর একেকটা ঘটনা ঘটে। তারা কখনো বলে আরেকটা ১৫ আগস্ট আবারও তারা বলে প্রধানমন্ত্রী তো দূরের কথা বিরোধী দলীয় নেতাও হতে পারবে না। তার (খালেদার জিয়ার) বিরুদ্ধে যে মামলা আমাদের সরকার তার বিরুদ্ধে তেমন মামলা দেয় নাই।বরং আমার বিরুদ্ধে খালেদা জিয়া এক ডজনের মতো মামলা দিয়ে ছিল। শুধু আমি নয় পররাষ্ট্র মন্ত্রী যখন ইংল্যান্ডের হাই কমিশনার ছিলেন তখন তার বিরুদ্ধে মামলা হযেছে। আমাদের সবার বিরুদ্ধে মামলা দিয়েছেন। 

প্রধানমন্ত্রী বলেন, তত্ত্ববাধয়কের সবাই তার নিজের লোক। ৯ জনকে ডিঙ্গিয়ে মঈন উদ্দিনকে বানালেন সেনাপ্রধান। ওয়ার্ল্ড ব্যাংকের চাকরি করছিলেন ফখরুদ্দিন আহমেদ তাকে এনে বানিয়ে দিলেন বাংলাদেশে ব্যাংকের গর্ভনর। আর ইয়াজউদ্দীন ছিলেন তারই প্রেসিডেন্ট ছিলেন। সবাই তারই লোক আর তাদের আমলেই করা মামলা। এবং সেই মামলা থেকে পলায়ণ পর মনোবৃত্তি সেটা আপনারা নিজেরাই দেখেছেন। মামলায় ১৫০বার সময় বাড়ানো হয়েছে ২২/২৩বার রিট আবেদন করা হয়েছে। 

সম্প্রতি জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট ও জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতির মামলায় আত্মপক্ষ সমর্থনে চতুর্থ দিনের বক্তব্য দিতে গিয়ে আদালতকে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া বলেন, শেখ হাসিনার প্রতি প্রতিহিংসামূলক আচরণ করবেন না তিনি। প্রতিহিংসার রাজনীতিও করবেন না। শেখ হাসিনাকে তিনি ক্ষমা করে দিয়েছেন।  

বৃহস্পতিবার বিকাল ৪টায় প্রধানমন্ত্রীর কম্বোডিয়া সফর নিয়ে গণভবনে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে একুশে টেলিভিশনের সিইও, সাংবাদিক  মঞ্জুরুল আহসান বুলবুল বেগম জিয়ার বক্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে প্রধানমন্ত্রীর প্রতিক্রিয়া জানতে চাইলে তিনি একথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী আরো বলেন, তিনি (খালেদা জিয়া) মঈন উদ্দিন আহমেদকে বিদেশ থেকে এনে বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর বানিয়েছেন। আর সেনাপ্রধান বানিয়েছেন তারই পছন্দের লোক জেনারেল মঈন ইউ আহমেদকে। তাদের আমলে তাঁর বিরুদ্ধে দুর্নীতির মামলা করা হয়েছে। এখানে সরকার কোনো প্রকার হস্তক্ষেপ করবে না। 

সংবাদ সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রী আসন্ন নির্বাচনে জাতীয় সংসদ নির্বাচনে তার দলের কোনো এমপি-মন্ত্রী লাল তালিকায় নেই বলে সাংবাদিকদের জানান। তবে দলীয় সার্থে কোনো কোনো আসনে প্রার্থী পরিবর্তন হতে পারে। 

এইচএস 









« PreviousNext »



সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
Editor : Iqbal Sobhan Chowdhury
Published by the Editor on behalf of the Observer Ltd. from Globe Printers, 24/A, New Eskaton Road, Ramna, Dhaka.
Editorial, News and Commercial Offices : Aziz Bhaban (2nd floor), 93, Motijheel C/A, Dhaka-1000. Phone :9586651-58. Fax: 9586659-60, Advertisement: 9513663
E-mail: info@dailyobserverbd.com, news@dailyobserverbd.com, advertisement@dailyobserverbd.com,   [ABOUT US]     [CONTACT US]   [AD RATE]   Developed & Maintenance by i2soft