For English Version
সোমবার, ২৩ অক্টোবর, ২০১৭
হোম আইন-আদালত

খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা

Published : Thursday, 12 October, 2017 at 12:28 PM Count : 110
অবজারভার আদালত প্রতিনিধি

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে দায়ের করা দুটি মামলায় গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেছেন আদালত।

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলার শুনানিতে হাজির না হওয়ায় বৃহস্পতিবার ঢাকার পঞ্চম বিশেষ জজ ড. মো. আখতারুজ্জামান খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারির আদেশ দেন।

একইসঙ্গে মাগুরার সাবেক সংসদ সদস্য কাজী সালিমুল হক কামাল ওরফে ইকোনো কামাল ও ব্যবসায়ী শরফুদ্দিন আহমেদের জামিন বাতিল করে তাদেরকে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত।

এছাড়াও মুক্তিযুদ্ধকে কলঙ্কিত এবং বাংলাদেশের স্বাধীনতা ও জাতীয় পতাকাকে অপমান করার অভিযোগে দায়ের করা মানহানির মামলায় বৃহস্পতিবার গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেন ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট মো. নুর নবী। একইসঙ্গে আগামী ১২ নভেম্বর পরবর্তী শুনানির দিন ধার্য করেন।

জননেত্রী পরিষদের সভাপতি এবি সিদ্দিকী মানহানির এ মামলাটি দায়ের করেন।

গত ১৭ সেপ্টেম্বর মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট মো. নুর নবী আদেশে বলেছিলেন, ৫ অক্টোবর আত্মসমর্পণ না করলে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করা হবে। কিন্তু ৫ অক্টোবরও হাজির না হওয়ায় আদালত আজ দিন ধার্য করেন।

আদালত আদেশে বলেন, বার বার সমন দেওয়া সত্ত্বেও আসামি আদালতে হাজির হননি। শেষ বারের মতো সময় দেওয়া হলেও তিনি আদালতে আসেননি। এমনকি আদালতকে তার পক্ষ থেকে কিছু জানানো হয়নি। এ কারণে আসামির বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করা হলো।

২০১৬ সালের ৩ নভেম্বর সাবেক রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান ও খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে আদালতে এই মামলাটি দায়ের করেন জননেত্রী পরিষদের সভাপতি এ বি সিদ্দিকী। মামলায় জিয়াউর রহমানের মরণোত্তর বিচার দাবি করা হয়। মামলাটি গ্রহণ করে আদালত তেজগাঁও থানাকে ঘটনার তদন্তের নির্দেশ দেন। পরে তদন্ত করে খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে অভিযোগের সত্যতা পাওয়া যায় বলে গত ২৫ ফেব্রুয়ারি প্রতিবেদন দেন তদন্ত কর্মকর্তা।

গত ২২ মার্চে এই মামলায় খালেদা জিয়াকে হাজির হতে সমন জারি করেন আদালত। এরপর কয়েকটি ধার্য তারিখ অতিবাহিত হলেও খালেদা জিয়া হাজির হননি। অবশ্য বর্তমানে তিনি লন্ডনে চিকিৎসার জন্য রয়েছেন।

মামলার অভিযোগে বলা হয়, ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধুকে সপরিবারে হত্যার পর জিয়াউর রহমান ক্ষমতা দখল করেন। ১৯৮১ সালের ১০ জানুয়ারি বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনা দেশে ফিরে এলে জিয়াউর রহমান তাকে বিভিন্নভাবে হুমকি দেন। এছাড়া জিয়া ও বেগম জিয়া দু'জনই যুদ্ধাপরাধীদের পুনর্বাসন করেন। বেগম জিয়া জামায়াতের সঙ্গে জোটবদ্ধ হয়ে নির্বাচন করে ক্ষমতায় এসে রাজাকারদের মন্ত্রিত্ব দেন। তাদের গাড়িতে জাতীয় পতাকা ব্যবহার করার সুযোগ দিয়ে জাতীয় পতাকাকে অপমানিত করা হয়। সেই সঙ্গে দেশের স্বাধীনতাকে অপমানিত করা হয়।

বৃহস্পতিবার সকালে চিকিৎসার জন্য বিদেশে থাকার কথা বলে অরফানেজ মামলার প্রধান আসামি খালেদা জিয়ার আত্মপক্ষ সমর্থনের দিন পেছাতে ফের সময়ের আবেদন জানান তার আইনজীবী অ্যাডভোকেট সানাউল্লাহ মিয়া। অন্যদিকে জামিন বাতিল করে খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারির আবেদন জানান দুদকের আইনজীবী অ্যাডভোকেট মোশাররফ হোসেন কাজল।

আদালত আসামিপক্ষের আবেদন নামঞ্জুর করে খালেদার জামিনের পাশাপাশি আত্মপক্ষ সমর্থনও বাতিল করে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেন। একইসঙ্গে আসামিপক্ষের সাফাই সাক্ষ্য বাতিল করে আগামী ১৯ অক্টোবর মামলার সর্বশেষ ধাপ যুক্তিতর্ক উপস্থাপনের দিন ধার্য করেন।  

মামলাটির অন্য দুই আসামি কাজী সালিমুল হক কামাল ওরফে ইকোনো কামাল ও শরফুদ্দিন আহমেদ ১২ অক্টোবর পর্যন্ত অস্থায়ী জামিনে ছিলেন। তারা জামিনের মেয়াদ বাড়ানোর আবেদন জানালে তা নামঞ্জুর করে তাদেরকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন আদালত।

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলার নথি থেকে জানা যায়, জিয়া অরফানেজ ট্রাস্টের দুই কোটি ১০ লাখ ৭১ হাজার ৬৪৩ টাকা আত্মসাতের অভিযোগ এনে খালেদা জিয়া, তারেক রহমানসহ ছয়জনের বিরুদ্ধে ২০০৮ সালের ৩ জুলাই রমনা থানায় মামলা করে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

মামলায় খালেদা জিয়া ও বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমান ছাড়া অন্য আসামিরা হলেন, মাগুরার সাবেক সংসদ সদস্য (এমপি) কাজী সালিমুল হক কামাল, ব্যবসায়ী শরফুদ্দিন আহমেদ, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সাবেক সচিব কামাল উদ্দিন সিদ্দিকী ও সাবেক রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের ভাগ্নে মমিনুর রহমান।

উল্লেখ্য, যাত্রীবাহী বাসে আগুন ধরিয়ে মানুষ হত্যার অভিযোগে দায়ের করা একটি মামলায় গত সোমবার খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি হয়।

-এএইচ/এমএ








« PreviousNext »



সর্বশেষ সংবাদ
সর্বাধিক পঠিত
Editor : Iqbal Sobhan Chowdhury
Published by the Editor on behalf of the Observer Ltd. from Globe Printers, 24/A, New Eskaton Road, Ramna, Dhaka.
Editorial, News and Commercial Offices : Aziz Bhaban (2nd floor), 93, Motijheel C/A, Dhaka-1000. Phone :9586651-58. Fax: 9586659-60, Advertisement: 9513663
E-mail: info@dailyobserverbd.com, news@dailyobserverbd.com, advertisement@dailyobserverbd.com,   [ABOUT US]     [CONTACT US]   [AD RATE]   Developed & Maintenance by i2soft